রবিবার, ২৯ মার্চ ২০২০, ০৫:৫৪ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :

আগামীকাল থেকে শুরু হচ্ছে রিহ্যাব চট্টগ্রাম ফেয়ার ২০২০

worksfare LTD
  • Update Time : ৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২০
  • ৫০ Time View

স্বপ্নীল আবাসন সবুজ দেশ, লাল সবুজের বাংলাদেশ’’ স্লোগানে চট্টগ্রাম নগরীর হোটেল রেডিসন ব্লু’তে আগামীকাল বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে চার দিনব্যাপী রিহ্যাব চট্টগ্রাম ফেয়ার ২০২০। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টায় চট্টগ্রাম ক্লাব অডিটোরিয়ামে রিহ্যাব চট্টগ্রাম ফেয়ার উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে রিহ্যাব ভাইস প্রেসিডেন্ট ও চট্টগ্রাম রিজিওনাল কমিটির চেয়ারম্যান আবদুল কৈয়ূম চৌধুরী এ তথ্য জানান। এবারের ফেয়ারে ৫৫টি প্রতিষ্ঠানের ৭৩টি স্টল অংশ নিচ্ছে।

সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্যে জানানো হয়, দেশের অর্থনীতিতে সমগ্র নির্মাণশিল্পের অবদান ১৫ শতাংশ। বাংলাদেশের আবাসনসংশ্লিষ্ট শিল্পের ওপর ৩৫ লাখ শ্রমিক নির্ভরশীল। এ ছাড়া আবাসন খাত নতুন নতুন উদ্যোক্তা সৃষ্টি করছে। যা দেশে উন্নয়নে শক্তিশালী ভূমিকা রাখছে। কিন্তু নীতিনির্ধারণী কিছু সমস্যার কারণে আবাসন খাত বর্তমানে সংকটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। তবে এ সংকটময় অবস্থা থেকে ধীরে ধীরে এ খাত বেরিয়ে আসছে। কিছু দিন আগে এই খাতের নিবন্ধন ব্যয় ২ শতাংশ কমানো হয়েছে। এ ছাড়া রিহ্যাব এর পক্ষ থেকে আরো ৪ শতাংশ নিবন্ধন ব্যয় কমানোর জন্য জোর তৎপরতা চলছে। এখনও সব নাগরিকের জন্য দীর্ঘমেয়াদি ঋণের ব্যবস্থা না থাকা এবং ব্যাংক ঋণের উচ্চ সুদহার এ খাতের বড় প্রতিবন্ধকতা।

আবদুল কৈয়ূম চৌধুরী সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, চট্টগ্রামে রিহ্যাব সদস্য ডেভেলপারের সংখ্যা ৮৩। কিন্তু আরো প্রায় ২০০ ডেভেলপার নিবন্ধনহীন ও অবৈধভাবে ব্যবসা করছেন। এদের অপকর্মের দায় রিহ্যাব নেবে না। মেলা থেকে ৪৫০ কোটি টাকার প্লট ও ফ্ল্যাট বুকিংয়ের প্রত্যাশা করছেন তিনি।

এবারের চার দিনব্যাপী ফেয়ারে ৭৩টি স্টল স্থান পাচ্ছে। আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বিল্ডিং ম্যাটেরিয়ালসসহ কয়েকটি লিংকেজ প্রতিষ্ঠানকে ফেয়ারে অংশগ্রহণ করার সুযোগ করে দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হওয়া এ মেলা চলবে ৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

উদ্বোধনী অধিবেশনে প্রধান অতিথি থাকবেন গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম। বিশেষ অতিথি থাকবেন সংসদ সদস্য নুরুন্নবী শাওন চৌধুরী, সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন এবং চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এম জহিরুল আলম দোভাষ।

চার দিনব্যাপী এ ফেয়ারে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত ক্রেতা ও দর্শনার্থীরা প্রবেশ করতে পারবেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


More News Of This Category