বুধবার, ০১ এপ্রিল ২০২০, ০১:০২ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :

ভৈরবে মোটরসাইকেল সার্ভিসিং সেন্টারে আগুন,দগ্ধ ৩

J I
  • Update Time : ২১ মার্চ, ২০২০
  • ১৪ Time View

এম আর ওয়াসিম, ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি: কিশোরগঞ্জের ভৈরবে বঙ্গবন্ধু সরণি সড়কে একটি মোটরসাইকেল শো-রুমে সার্ভিসিং সেন্টারে মোটর সাইকেলের প্লাগ এর স্পার্কিং থেকে তেলের ট্যাংকী বিস্ফোরণে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। মেরামত করা অবস্থায় মোটরসাইকেল থেকে হঠাৎ বিস্ফোরণ হয়। সাথে সাথে আগুনের সূত্রপাত হয়। কোন কিছু বুঝার আগেই সার্ভিসিং সেন্টারটি জ্বলে উঠে। সার্ভিসিং সেন্টারে মোটসাইকেল মেরামত করার সময় ৩জন টেকনিশিয়ান গুরুত্বর অগ্নিদগ্ধ হয়। তাদের ৩জনকে প্রাথমিকভাবে ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সে নেওয়া হলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাদের অবস্থার অবনতি দেখে তাদের তিনজনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজের র্বাণ ইউনিটে প্রেরণ করে। অগ্নিদূর্গ্ধরা হলো
হলো রাখাল (২৮), সাইফুল (২৫) ও হৃদয় (২৭)। তাদের মধ্যে সাইফুলের শতভাগ অংশ ও রাখাল ও হৃদয়ের শরীরের ৭০ভাগ অংশ পুড়ে গেছে বলে জানায় কর্তব্যরত চিকিৎসক।
ভৈরব ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা যায়, শনিবার বেলা সাড়ে ৩টার দিকে বঙ্গবন্ধু সরণি সড়কে অবস্থিত একটি মোটরসাইকেল শো-রুম বাজাজ (ইঅঔঅঔ) এর সার্ভিসিং সেন্টারে ৩জন টেকনিশিয়ান ১টি মোটরসাইকেলকে মেরামত করছিল। মেরামতের এক পর্যায়ে পাগ এর স্পার্কিং থেকে হঠাৎ হালকা বিস্ফোরণে মোটরসাইকেলের তেলের ট্যাংকীর থেকে আগুন জ্বলে উঠে। আগুন সাথে সাথে ৩জন টেকনিশিয়ানের সারা শরীরে ছড়িয়ে পড়ে এতে ৩জন টেকনিশিয়ানই অগ্নিদগ্ধ হয়। অগ্নিদগ্ধে সার্ভিসিং সেন্টারটি পুড়ে যায়। সার্ভিসিংরত আরো ৩টি মোটরসাইকেল আগুনে পুড়ে গেছে। সাথে সাথে ভৈরব ফায়ার সার্ভিসের ২টি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আধা ঘন্টার চেষ্টা করার পর আগুনে নিয়ন্ত্রনে আনতে সক্ষম হয়। ঘটনার সময় বঙ্গবন্ধু সরণি যান চলাচল বন্ধ হলে ভৈরব থানা পুলিশ ও র‌্যাব ঘটনাস্থলে পৌঁছে রাস্তার স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরিয়ে আনে। অগ্নিদগ্ধ সাইফুল (২৫) শরীরের শতভাগ পুড়ে গেছে তার পিতার নাম- ফিরোজ মোলা বাড়ি-নরসিংদী জেলার, রায়পুরা উপজেলার লক্ষীপুর এলাকায়। রাখালের (২৮) শরীরের ৭০ভাগ অংশ পুড়ে গেছে তার পিতা- মিজানুর রহমান, সে নরসিংদী জেলার বেলাব উপজেলার মরজাল এলাকার বাসিন্দা ও মোঃ হৃদয় (২৭) শরীরের ৬৫-৭০ভাগ অংশ পুড়ে গেছে। তার বাড়ি কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলা বলে জানা গেছে।
ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সের মেডিকেল অফিসার ডাঃ মোঃ তামজীদুস সিফাত জানান, অগ্নিদূর্গ্ধের ৩জনেরই অবস্থাই এতই আশংঙ্কাজনক যে, আমরা ৯৯৯ ফোন করে এমবোলেন্স ডেকে তাদের ৩জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করেছি ঢাকার মেডিকেল কলেজের বার্ণ ইউনিটে। তাদের ৩জনই মুখমন্ডলসহ সারা শরীরের বিভিন্ন অংশে ক্ষতি সাধিত হয়েছে।
ভৈরব বাজার ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার জহিরুল ইসলাম জানান, অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে সাথে সাথে আমরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিভানোর কাজ শুরু করি, কিন্তু পেট্রোল জাতীয় পদার্থের কারণে আগুন নেভাতে কিছুটা সময় লাগে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


More News Of This Category